West Bengal Panchayat Election 2023: অভিষেকের নবজোয়ারের সাফল্যে পঞ্চায়েতে প্রার্থী তালিকায় দেখা গেল ৯৫% নতুন মুখ

West Bengal Panchayat Election 2023: অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নয়া কৌশলে আশাবাদী তৃণমূল নেতৃত্ব

হাইলাইটস:

• তৃণমূলের নবজোয়ার কর্মসূচি শাসকদল জুগিয়েছে বাড়তি অক্সিজেন

• যার ফলস্বরূপ পঞ্চায়েতে প্রার্থী তালিকায় দেখা গেল ৯৫% নতুন মুখ

• অভিষেকের নয়া কৌশলে তৃণমূল নেতৃত্ব অনেকটাই আশাবাদী

West Bengal Panchayat Election 2023: পঞ্চায়েত ভোটের বেশিরভাগ প্রার্থী বাছাই করা হয়েছে নবজোয়ার যাত্রা ও ফোনের মাধ্যমে। তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ‘নবজোয়ার যাত্রার’ সময়কালে জেলার দলীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করাকালীন নতুন মুখ তুলে আনার কথা জানিয়ে দিয়েছিলেন। পুরভোটের সময়েও বহু জায়গায় তুলে আনা হয় নতুন মুখ। যুবদের সাথে সাথে সমাজের নানা স্তরে প্রতিষ্ঠিত লোকজনকেও আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটে প্রার্থী করেছে তৃণমূল।

এবারের পঞ্চায়েত ভোটে নতুনদের অগ্রাধিকার দিয়েছে তৃণমূল। গ্রাম সভায় ৯৫ শতাংশ নতুন মুখ গ্রাম পঞ্চায়েত ভোটে। জনসংযোগ কর্মসূচী ও ফোনে প্রার্থী বাছাই করা হয়েছে। নতুন মুখ নিয়েই এবারের গ্রাম পঞ্চায়েত ভোটের লড়াইয়ে নামার সিদ্ধান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে তৃণমূল। এমনটাই জানা গেছে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের থেকে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নবজোয়ার যাত্রায় প্রার্থী বাছাইকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছিল। প্রার্থী খুঁজতে দলের ভোট করা হয়েছিল। এছাড়াও একটি নতুন কায়দায় প্রার্থী বাছাই করেছে এবার তৃণমূল। ফোন কলের মাধ্যমে বহু লোক তাদের পছন্দের প্রার্থীর নাম জানিয়েছেন। নতুন মুখেই ভরসা করে পঞ্চায়েত ভোটের মাঠে নামছে বঙ্গের শাসক দল। তবে তেমন বড়সড় বদল আনা হয়নি জেলা পরিষদ আসনে৷

তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে জানা গেছে, প্রাতিষ্ঠানিক বিষয়ের ওপরেই ধাক্কা দিতেই নতুন মুখ নিয়ে এসেছে দল। জেলা পরিষদের ক্ষেত্রে তৃণমূল নেতৃত্ব দাবি জানিয়েছেন, ব্লক সভাপতি ও বিধায়কেরা যৌথ ভাবে প্রার্থীদের নাম পাঠিয়েছিলেন। একটি তালিকা জমা দিয়েছিলেন জেলা সভাপতিও। সেই তালিকার ভিত্তিতে দলীয় স্তরে আলোচনা হয়েছে। পুরনোদের একাংশকে বাদ দেওয়ার কারণও দলীয় স্তরে বিধায়ক, ব্লক সভাপতিরা দলকে জানিয়েছেন। পঞ্চায়েত সমিতির প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও একই পদ্ধতি অনুসরণ করা হল।

পঞ্চায়েতের ভোটের প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি, ব্লক সভাপতি ও বিধায়কেরা নাম জমা দিয়েছেন। সেই তালিকা থেকে দু’টি করে নাম দলের রাজ্য স্তরে পাঠানো হয়েছিল। এছাড়াও অভিষেক বাবুর ‘নবজোয়ার যাত্রায়’ ভোটাভুটিতে উঠে আসা নাম নিয়েও খোঁজ নিয়েছিল তৃণমূল। ফোনের মাধ্যমে যারা মতামত দিয়েছিলেন, তাদের মতামতের ভিত্তিতে সংগ্রহিত নামগুলিও গ্রহণ করা হয়েছিল। সব মিলিয়ে বহু পর্যবেক্ষণ করেই গ্রাম পঞ্চায়েতে প্রার্থী দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস।

তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে জানা গেছে, ‘তৃণমূলের নবজোয়ার যাত্রা’ কর্মসূচি চলাকালীন জেলার দলীয় নেতৃত্বের সাথে বৈঠকের সময়ে নতুন মুখ তুলে আনার ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। পূর্বেও পুরভোটের সময়েও বহু জায়গায় নতুনদের তুলে আনা হয়েছিল। এছাড়াও যুবদের পাশাপাশি সমাজের নানা স্তরে প্রতিষ্ঠিত লোকজনকেও এই পঞ্চায়েত ভোটে প্রার্থী করেছে তৃণমূল।

এইরকম রাজনৈতিক বিষয়ক প্রতিবেদন পেতে ওয়ান ওয়ার্ল্ড নিউজ বাংলার সাথে যুক্ত থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.