Hollong Bungalow Fire: মুহূর্তের মধ্যে পুড়ে ছাই পর্যটকদের প্রিয় জলদাপাড়ার ঐতিহ্যমণ্ডিত হলং বাংলো, চিন্তায় পর্যটকদের একাংশ

Hollong Bungalow Fire: চোখের নিমেষে পুড়ে ছাই হয়ে গেল হলং বাংলো

 

হাইলাইটস:

  • পর্যটকদের কাছে অত্যন্ত প্ৰিয় একটি জায়গা ছিল হলং বাংলো
  • এবার সেই বাংলোই পুড়ে ছাই হয়ে গেল
  • কি ভাবে লাগলো আগুন?

Hollong Bungalow Fire: পর্যটকদের কাছে অন্যতম বড় আকর্ষণ ছিল জলদাপাড়ার ঐতিহ্যমণ্ডিত হলং বাংলো। শুধুমাত্র এই রাজ্যেরই নয়, দেশ-বিদেশের পর্যটকদের কাছেও অত্যন্ত পছন্দের জায়গা ছিল এই বাংলো। তাই তো এই বাংলোর বুকিংয়ের চাহিদাও সব সময় তুঙ্গে থাকে। এবার চোখের নিমেষে পুড়ে ছাই হয়ে গেল সেই বাংলো।

We’re now on WhatsApp – Click to join

আলিপুরদুয়ার জেলার জলদাপাড়ার হলং বাংলোকে পর্যটনের প্রাণকেন্দ্র বললে খুব একটা ভুল হবে না। সূত্রের খবর, রাত ৯টা নাগাদ নাকি আগুন লাগে এই বাংলোতে। এই বীভৎস অগ্নিকাণ্ডে কার্যত পুড়ে ছাই গোটা বাংলো। প্রাথমিক সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে যে, বাংলোয় যে ক’টি ঘর ছিল, সবগুলিই ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পর্যটকদের অত্যন্ত পছন্দের জলদাপাড়ার হলং বন বাংলো আগুনের তাপে কার্যত ভষ্মীভূত হয়ে গিয়েছে।

মাদারিহাটের জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের ভেতরেই অবস্থিত এই হলং বন বাংলো। এই বাংলোর গা বেয়ে বয়ে যায় হলং নদী। ভিআইপি থেকে সাধারণ পর্যটক প্রত্যেকেরই প্রিয় হল এই বাংলো। তবে বর্ষার মরশুমে বর্তমানে পর্যটকদের জন্য জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যান বন্ধ রয়েছে। তাই হলং বাংলোয় এই সময়ে কোনও পর্যটক ছিলেন না বলেই জানা যাচ্ছে। নাহলে কিন্তু বড়সড় অঘটন ঘটে যাওয়ারও আশঙ্কা ছিল।

We’re now on Telegram – Click to join

ঐতিহ্যবাহী এই হলং বাংলোর ঢিল ছোড়া দূরেই রয়েছে বন আধিকারিক এবং বনকর্মীদের কোয়ার্টার। তবে সকলের নজর এড়িয়ে কি ভাবে সেখানে আগুন লাগলো, তা নিয়েই উঠছে একাধিক প্রশ্ন। আগুন নেভাতে ঘটনাস্থলে আসে দমকলের একাধিক ইঞ্জিনও। তবে আগুন লাগার কারণ হিসাবে উঠে আসছে শর্ট সার্কিটের কথা। সম্পূর্ণ বাংলোটি কাঠের তৈরি হওয়ায় আগুনও দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। মুহূর্তের মধ্যে সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে যায় পর্যটকদের প্ৰিয় বাংলো। আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে বাংলোর কর্মীরা অগ্নিনির্বাপন যন্ত্র দিয়ে আগুন নেভানো চেষ্টা করলেও তাতে খুব বেশি লাভ হয়নি।

Read more:- কুয়েতের বহুতলে আগুন লাগার ঘটনায় মৃত ৪৯, যার মধ্যে ৪০ জন ভারতীয়, আর্থিক সাহায্য কেন্দ্রের

এই হলং বন বাংলো ছিল রাজ্য সরকারের অধীনে। ২০১৪ সালে জলদাপাড়া অভয়ারণ্য জাতীয় উদ্যানের তকমা পাওয়ার পর হলং বাংলোর জনপ্রিয়তা আরও বেড়ে গিয়েছে। এবার সেই বাংলোই মঙ্গলবারের বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে ছাই হয়ে গেল।

এইরকম গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন পেতে ওয়ান ওয়ার্ল্ড নিউজ বাংলার সাথে যুক্ত থাকুন। 

Sanjana Chakraborty

Professional Content Writer

Leave a Reply

Your email address will not be published.