পানিফলের উপকারিতা এবং হৃদরোগের মতো রোগের চিকিৎসার সঠিক সমাধান

পানিফলের স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্বন্ধে জেনে নিন এক নজরে

পানিফলে অনেক ধরনের পুষ্টিকর উপাদান পাওয়া এবং এটি বিভিন্ন রোগের ওষুধ হিসেবেও ব্যবহার করা হয়। সেই কারণেই বিখ্যাত পুষ্টিবিদ লাভনীত বাত্রাও পানিফল খাওয়ার পরামর্শ দেন। জলাশয়ে চাষ হয় বলে একে পানিফল (Water Chestnuts) বলা হয়। এটি প্রধানত পুকুর বা জলাশয়ে জন্মায়। এই ফলের দুই প্রান্তে শিং-সদৃশ কাঁটা থাকে। এটি বেশিরভাগ উপবাসের সময় খাওয়া হয়। এই ফলের নানা জায়গায় নানা নাম, কেউ বলেন ওয়াটার কালট্রপ, বাফেলো নাট, ডেভিল পড ইত্যাদি। আবার ইংরাজিতে একে ওয়াটার চেস্টনাটও বলা হয়।

পানিফল খাওয়ার উপকারিতা কি?

NCBI-এর মতে, পানিফল ডায়াবিটিস, ডায়রিয়া, নাক দিয়ে রক্ত পড়া, ফ্র্যাকচার এবং প্রদাহজনিত রোগ ইত্যাদির জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

সুস্থ হার্টের জন্য সেবন করুন :

পুষ্টিবিদদের মতে, এতে উচ্চ পটাসিয়ামযুক্ত খাদ্য উচ্চ রক্তচাপ এবং স্ট্রোকের মতো হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

টিউমার বৃদ্ধি ধীর করে :

পুষ্টিবিদদের মতে, পানিফলে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ক্যান্সার বৈশিষ্ট্য। যা ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি কমাতে বা ধীর করতে সাহায্য করতে পারে।

প্রদাহের সঙ্গে লড়াই করে :

বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ফলে রয়েছে ফিসেটিন, ডায়োসমেটিন, লুটিওলিন এবং টেকটোরিজিনিন সহ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এই বৈশিষ্ট্যগুলি ক্ষতিগ্রস্ত কোষগুলি মেরামত করতে এবং প্রদাহ কমাতে সাহায্য করতে পারে।

​চুলের জন্য উপকারী :

পানিফল আপনার চুলকে স্বাস্থ্যকর করতে সাহায্য করে। প্রকৃতপক্ষে এতে পটাসিয়াম, জিঙ্ক, B ভিটামিন এবং ভিটামিন E-এর মতো গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি রয়েছে যা চুলকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে।

ওজন নিয়ন্ত্রণে সহায়ক :

পুষ্টিবিদ লাভনীত ব্যাখ্যা করেছেন যে, পানিফল উচ্চ-আয়তনের খাদ্য হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়। যা আপনার ডায়েটে বেশি ক্যালোরি যোগ না করে ঘন ঘন খিদে পাওয়া রোধ করতে সাহায্য করে। যা ওজন নিয়ন্ত্রণে সহায়ক হতে পারে।

Sanjana Chakraborty

My name is Sanjana Chakraborty. I'm a content writer. Writing is my passion. I studied literature, so I love writing.

Leave a Reply

Your email address will not be published.