Marathon in Saree: ব্রিটেনের রাজপথে ম্যারাথন দৌড়ে দেখা গেল সম্বলপুরী শাড়িতে ওড়িশার মেয়ে মধুস্মিতাকে

তিনি ৪২.৫ কিমি পথ দৌড়লেন সম্বলপুরী শাড়িতে

হাইলাইটস:

•ব্রিটেনের রাজপথে ম্যারাথন দৌড়ে ওড়িশা কন্যা

•সম্বলপুরী শাড়িতে দেখা গেল ওড়িশার মেয়ে মধুস্মিতা জেনাকে

•কার্যত নজিরবিহীন ঘটনার সাক্ষী থাকল ভারতবাসী

Marathon in Saree: সম্প্রতি একটি ভাইরাল ভিডিও নেটপাড়ায় কার্যত হৈচৈ ফেলে দেয়। ভিডিওতে দেখা গেছে একজন মেয়ে সম্বলপুরী শাড়ি পরে ম্যারাথনে দৌড়োছেন। তারপর প্রকাশ্যে এল পুরো বিষয়টি। ব্রিটেনের ম্যাঞ্চেস্টার শহরে একটি ম্যারাথন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। সেই ম্যারাথন দৌড়ে মধুস্মিতা জেনা নামের এক মেয়ে সম্বলপুরী শাড়ি (Marathon in Saree) পরে দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছেন।

মধুস্মিতা জন্মগ্রহণ করেন ওড়িশার (Odisha) কেন্দ্রাপড়ায়। ৪১ বছর বয়সি মধুস্মিতা বর্তমানে ম্যাঞ্চেস্টার শহরের একটি স্কুলের শিক্ষিকা৷ কর্মসূত্রে তিনি সেখানেই থাকেন। গত ১৬ই এপ্রিল ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতাটির আয়োজন করা হয়েছিল ম্যাঞ্চেস্টার শহরে। ব্রিটেনের ম্যাঞ্চেস্টার ম্যারাথন ২০২৩-এ ৪২.৫ কিলোমিটার দৌড়লেন ৪১ বছর বয়সি মধুস্মিতা। তাঁর এই দূরত্ব দৌড়োতে সময় লেগেছে ৪ ঘণ্টা ৫০ মিনিট৷ ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় বৃহত্তম ম্যারাথন হল এটি।

তিনি পরেছিলেন লাল টুকটুকে সম্বলপুরী হ্যান্ডলুম শাড়ি। শাড়িপ্রেমীরা জানেন যে, সম্বলপুরী শাড়ির গুরুত্ব কতখানি। কারণ এই শাড়িটির কারুকার্যের মধ্যে ওড়িশার ঐতিহ্য ফুটে ওঠে। প্রসঙ্গত ওড়িশার সম্বলপুর প্রদেশের শাড়ি গত কয়েকশো বছর ধরে আসীন সেরার জায়গায়৷

ফলে শাড়িপ্রেমীদের সংগ্রহের তালিকায় অন্তত একটি সম্বলপুরী শাড়ি থাকা যেন বাধ্যতামূলক। কিন্তু মধুস্মিতা যেভাবে ভারতীয় সংস্কৃতিকে আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুলে ধরলেন তাতে সেই শাড়ি যেন অন্য মাত্রা পেল বিশ্বের দরবারে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে তাঁর তাঁর ছবি এবং ভিডিও শেয়ার করার পর মুহূর্তের মধ্যে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। তাঁর এই ভিডিওটি দেখে সকলেই মুদ্ধ, এমনকি নেটিজেনরা বলছেন ওড়িশার গর্ব এই তরুণী। মধুস্মিতার প্রশংসার পঞ্চমুখ ভারতবাসী। কারণ ব্রিটেনের ম্যারাথনে শাড়ি পরে অংশ নেওয়া ঘটনা খুবই বিরল। অবশ্য এর আগে শাড়ি পরে অংশগ্রহণকারীদের দেখা গিয়েছে কলকাতা ও পুণের রাজপথে৷ কিন্তু ওড়িশার কন্যা যেন সকলের মধ্যে থেকেও নজির গড়ে ফেললেন।

মধুস্মিতার এই অভিনব পোশাক নির্বাচনে গর্বিত বিদেশে থাকা ভারতীয়রাও। তারাও তাঁকে কুর্নিশ জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, এর আগেও বহুবার ম্যারাথন দৌড়ে অংশগ্রহণ করেছেন মধুস্মিতা। এমনকি আল্ট্রা ম্যারাথনেও অংশ নিতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। শাড়ি পরে ম্যারথনে দৌড়ানো প্রসঙ্গে মধুস্মিতা জানিয়েছেন, তাঁর অনুপ্রেরণা মা এবং ঠাকুমা। তাঁরা শাড়ি পরে সব কাজ করতেন। বলেন, “অনেকে বলে থাকেন শাড়ি পরে দৌড়ানো যায় না। ম্যারাথনে দৌড়ে আমি তাঁদের ভুল প্রমাণ করেছি।” এমনকি তিনি জানিয়েছেন, “যে পোশাকে স্বচ্ছন্দ তাতেই দৌড়তে অভ্যস্ত৷”

এইরকম গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে ওয়ান ওয়ার্ল্ড নিউজ বাংলার সাথে যুক্ত থাকুন।

Sanjana Chakraborty

Professional Content Writer

Leave a Reply

Your email address will not be published.