Sushant Singh Rajput: মৃত্যু-বিতর্ক-কষ্ট, সবকিছু পেরিয়ে চার বছর পরেও স্মৃতিতে সুশান্ত সিং রাজপুত

Sushant Singh Rajput: রক্তমাংসে না থাকলেও স্মৃতি উজ্জ্বল সুশান্ত সিং রাজপুত

 

হাইলাইটস:

  • আজ সুশান্তের মৃত্যুর চার বছর সম্পূর্ণ হল
  • তবে আজও স্মৃতিতে সুশান্ত সিং রাজপুত
  • সুশান্তের কথা ভাবলে চোখে জল আসে কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারীর

Sushant Singh Rajput: আজ থেকে চার বছর আগে, করোনাকালের মধ্যে হঠাৎই দুঃসংবাদ পেয়েছিল সারা দেশ। ২০২০ সালের ১৪ই জুন মুম্বাইয়ে নিজের ফ্ল্যাটে আত্মহত্যা করেন অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত (Sushant Singh Rajput)। অভিনেতার চলে যাওয়া আজও অনেকেই মানতে পারেনি। সাফল্যের সিঁড়িতে দাঁড়িয়ে কেন এমন পরিণতি হল তাঁর, এই নিয়ে শুরু হয়েছিল তর্ক-বিতর্ক।

We’re now on WhatsApp – Click to join

সুশান্তের আকস্মিক মৃত্যুকে কেঁদেছিল গোটা দেশ। অন্যান্য দিনের মতো করোনাকাল চলাকালীন ওইদিনেও গৃহবন্দি সকলে। এরপর দুপুরের দিকে হঠাৎই খবর পাওয়া যায়, ব্রান্দ্রায় নিজের ফ্ল্যাট থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছে সুশান্ত সিং রাজপুতের। অভিনেতার পরিবার অভিযোগ তুলেছিল, সুশান্তের মৃত্যু স্বাভাবিক নয়। তাঁর আত্মহত্যার পিছনে কারও প্ররোচনা ছিল। এই অভিযোগ প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছিল হ্যাসট্যাগ ‘জাস্টিস ফর এসএসএস”।

দেশবাসীর ক্ষোভের মুখে পড়ে তদন্তও শুরু করেছিল মুম্বাই পুলিশ। এরপরই প্রকাশ্যে আসে একাধিক তথ্য। মাদকের নেশা থেকে শুরু করে প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর ভাই সৌভিক চক্রবর্তী, পুলিশের জ্বালে জড়িয়েছিলেন অনেকেই। সবচেয়ে বড় কথা সুশান্তের মৃত্যুতে প্রকাশ্যে এসেছিল বলিউডের ‘ব্ল্যাক সাইড’।

সুশান্তের মৃত্যু বা সম্ভাব্য আত্মহত্যা নিয়ে তর্ক-বিতর্ক যেন শেষই হচ্ছিল না। তবে চার বছর পরেও সবেতে ধোঁয়াশা রয়েই গিয়েছে। অভিনেতার মৃত্যুর চার বছর পরেও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিদিনই তাঁর নামের হ্যাসট্যাগ ট্রেন্ডে থাকে। স্বাধীনতার পর থেকে এই প্রথম ভারতবর্ষ দেখেছিল কোনও এক অভিনেতার মৃত্যুকে সমগ্র দেশবাসীকে এক সুরে সুর মেলাতে। তাই তো রক্তমাংসে না থাকলেও স্মৃতি আজও উজ্জ্বল সুশান্ত সিং রাজপুত। আজও যার কথা মনে পড়লে কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারীর চোখে জল আসতে বাধ্য।

We’re now on Telegram – Click to join

টেলিভিশন জগৎ থেকে নিজের কেরিয়ার শুরু করে কীভাবে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে রাজ করতে হয়, তা সুশান্ত দেখিয়ে দিয়েছিলেন। তিনি বহু মানুষের আইডেল ছিলেন। বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে অল্প সময়ে থেকেই তিনি যে কাজ করে গেছেন, তা দেশবাসী সারাজীবন মনে রাখবেন। এক সময় অভিনেত্রী দিব্যা ভারতীর অকস্মাৎ মৃত্যু দোলাচলে ফেলেছিল সাধারণ মানুষকে। তবে সে সময় ইন্টারনেট ছিল না বলে ব্যাপারটা নিয়ে বেশি জলঘোলা হয়নি।

সুশান্তের মৃত্যুতে প্রথম সামনে এসেছিল বলিউডের ‘নেপোটিজম’ বা স্বজনপোষণের ঘটনা। চার বছর হয়ে গেলেও তাবড় তাবড় প্রযোজক কিংবা পরিচালক এই নিয়ে স্পষ্ট উত্তর দিতে পারেন না। সত্যি বলতে, ‘নেপোটিজম’-কে বাস্তব হিসাবে মেনেই নিয়েছেন সমাজের অধিকাংশ মানুষ। আর এই তথ্যকে একেবারে খারিজ করে দেওয়াও যাবে না। এখনও পর্যন্ত নাকি বহিরাগতদের বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকার জন্য একাধিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। সুশান্তও তাঁদের মধ্যেই একজন ছিল।

Read more:- সুশান্ত রাজপুতের বড় বোন শ্বেতা সিং কীর্তি-র বইটি মুম্বাইয়ের লিট-ও-ফেস্টে লঞ্চ হল

অনেকেই মনে করেন যে, সুশান্তের মৃত্যু সম্পর্কিত আসল কারণ কখনই জানা যাবে না। তবে এত কিছুর পরও তাঁর অসংখ্য অনুরাগী সত্যের জন্য লড়াই করে যান। সময় তো আর থেমে থাকে না। তাই তো সুশান্তের পছন্দের দামি গাড়ি আজ ধুলোয় ভারাক্রান্ত। এমনকি তাঁর ফ্ল্যাটও ভাড়া দেওয়া হয়েছে অভিনেত্রী আদাহ শর্মাকে। তাঁর প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীও একটি রিয়ালিটি শো’য়ের বিচারক পদে ছিলেন। কিন্তু এতকিছুর পড়েও সুশান্ত আজও স্মৃতিতে রয়ে গেছে কোটি কোটি দেশবাসীর।

এই রকম বিনোদন জগতের প্রতিবেদন পেতে ওয়ান ওয়ার্ল্ড নিউজ বাংলার সাথে যুক্ত থাকুন। 

Sanjana Chakraborty

Professional Content Writer

Leave a Reply

Your email address will not be published.