Swastika Mukherjee: মহিলাদের সাইবার বুলিংয়ের শিকার হওয়া নিয়ে এবার জাতীয় মহিলা কমিশনের মঞ্চে ট্রোলারদের বিরুদ্ধে সরব অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়

Swastika Mukherjee: এই মঞ্চ থেকে তিনি ট্রোলারদের বিরুদ্ধে কার্যত গর্জে উঠলেন

হাইলাইটস:

  • জাতীয় মহিলা কমিশনের মঞ্চে স্বস্তিকা
  • মহিলাদের সাইবার বুলিংয়ের শিকার হওয়া নিয়ে ট্রোলারদের বিরুদ্ধে সরব তিনি
  • বাংলা থেকে একমাত্র তিনিই ডাক পেয়েছিলেন এই সেমিনারে

Swastika Mukherjee: বরাবরই স্পষ্টভাষী অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। মনে যা আছে মুখেও তিনি কোনও দ্বিধা-দ্বন্দ্ব ছাড়াই অনায়াসে বলে ফেলেন। একেবারে সোজাসাপটা ভাষায় জবাবও দেন ট্রোলারদের। নিজের মনোভাব সকলের সামনে ব্যক্ত করতেই পিছুপা হন না তিনি। এখানেই স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় সকলের থেকে আলাদা।

তাঁর এই স্পষ্টভাষী মনোভাবের জন্যই সম্প্রতি নিউ দিল্লিতে আয়োজিত জাতীয় মহিলা কমিশনের মঞ্চে ডাক পেয়েছিলেন তিনি। বর্তমান যুগে মহিলাদের সাইবার বুলিংয়ের শিকার হওয়া নিয়ে কার্যত এই মঞ্চ থেকেই সুর চড়ালেন তিনি। বাংলা থেকে তিনিই একমাত্র ডাক পেয়েছিলেন এই অনুষ্ঠানে।

সেই প্রাচীনকাল থেকে ২০২৩-এ দাঁড়িয়েও আজও বাড়ির মেয়েদের নিস্তার নেই। বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলিং-এর কবলে পড়ে মেয়েরা। প্রায় প্রতিদিনই তাঁদের অশালীন মন্তব্য শুনতে হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সে শাড়ি হোক বা ওয়েস্টার্ন নিস্তার নেই কিছুতেই। তবে এই ট্রোলারর বিরুদ্ধে কেউ কেউ গর্জে উঠে তো আবার কেউ পাত্তাই দেন না। এই গর্জে উঠা মহিলাদের মধ্যে অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় কিন্তু অন্যতম।

অভিনেত্রীও সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিকবার কটাক্ষের শিকার হয়েছেন। তা তাঁর পোশাক নিয়ে হোক বা বডি শেমিং। তবে তিনি একজন স্পষ্টভাষী মহিলা। তাই ট্রোলারদের পাল্টা জবাব দিতেও জানেন। আগেও অনেকবার এই ট্রোলারদের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিলেন তিনি। তবে এবার তিনি জাতীয় মহিলা কমিশনে সরব হলেন মহিলাদের সাইবার বুলিংয়ের শিকার হওয়া নিয়ে।

তিনি জাতীয় মহিলা কমিশনের মঞ্চ থেকে নারীদের প্রতি কটুক্তি বা অশালীন আচরণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের জন্য সকলকে একজোট হওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। তিনি তাঁর ইনস্টাগ্রামে ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, “জাতীয় মহিলা কমিশন থেকে প্রতিদিন কেউ ডাক পান না। সম্প্রতি সাইবার নিরাপত্তা এবং ডিজিটাল এমপাওয়ারমেন্ট নিয়ে নিউ দিল্লিতে যে সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছিল, সেখানে প্যানেলিস্ট হিসেবে বাংলা থেকে একমাত্র আমি যোগ দিয়েছিলাম। বাংলায় এত বক্তা থাকতে আমাকেই ডাকা হয়েছে। আমি যেটা নিজে বিশ্বাস করি সেখানে সেই কথাই বলে এসেছি মঞ্চে। ভুয়ো নাম নিয়ে যে সব ট্রোলাররা প্রোফাইল খোলে তারা আদতে কাপুরুষ ছাড়া আর কিছুই নয়।

এবার আমাদের সময় এসেছে নিজেদের লজ্জা দূরে সরিয়ে রেখে ওদের উচিত শিক্ষা দেওয়ার। কারণ আমাদের নিরাপত্তা আমাদের হাতেই রয়েছে।” সুতরাং অভিনেত্রী খুবই ভালো করে উপলব্ধি করেছেন যে, আওয়াজ না তুললে এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটতেই থাকবে।

এইরকম বিনোদন জগতের প্রতিবেদন পেতে ওয়ান ওয়ার্ল্ড নিউজ বাংলার সাথে যুক্ত থাকুন।

Sanjana Chakraborty

Professional Content Writer