Bengali Tele Serial Remake: ইষ্টিকুটুম থেকে পটলকুমার গানওয়ালা, বাংলা থেকে হিন্দিতে রিমেক বানিয়েও মুখ থুবড়ে পড়েছে কোন সিরিয়ালগুলি?

Bengali Tele Serial Remake: একাধিক বাংলা সিরিয়ালের হিন্দি রিমেক ততটাও জনপ্রিয়তা পায়নি

হাইলাইটস:

  • এমন অনেক ধারাবাহিক আছে যেগুলি বাংলায় জনপ্রিয়তা অর্জনের পর পৌঁছয় মুম্বাইয়ে
  • তার মধ্যে অন্যতম হল ইষ্টিকুটুম থেকে মিঠাই
  • বাংলায় হিট হলেও হিন্দি রিমেক ফ্লপ হয়েছে এমন সিরিয়ালগুলির নাম জানেন?

Bengali Tele Serial Remake: ‘রিমেক’ শব্দটি বিনোদন দুনিয়ায় সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। আপনি যদি ‘রিমেক’ শব্দটির সাথে পরিচিত না হন, তবে জেনে রাখুন পুরনো কোনও বিষয় নতুন করে সাজানোর নামই হল ‘রিমেক’। গান বা সিনেমার ক্ষেত্রে রিমেক তো হয়ই বরং এই তালিকা থেকে বাদ পড়ছে না ধারাবাহিকগুলিও। বহু বাংলা সিরিয়ালের রিমেক হচ্ছে হিন্দি সহ অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষায়। এদিকে হিন্দি ধারাবাহিকও বাংলায় রিমেক হয়। তবে গত কয়েক বছরে বাংলা সিরিয়ালের হিন্দি বা অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষায় রিমেক হচ্ছে খুব বেশি। আজ জেনে নিন বাংলার কোন কোন ধারাবাহিক হিন্দিতে রিমেক হয়েছে এবং কতটাই বা সফল হয়েছে।

We’re now on WhatsApp – Click to join

ওগো বধূ সুন্দরী

২০০৯ সালের স্টার জলসার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ছিল ‘ওগো বধূ সুন্দরী’। যেখানে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন ঋতাভরী চক্রবর্তী এবং রাজদীপ গুপ্ত। দর্শকদের হৃদয়ে আজও একইভাবে রাজ করছে এই জনপ্রিয় ধারাবাহিক। পরে সেটি হিন্দিতেও রিমেক হয়। সিরিয়ালের নাম রাখা হয় ‘শ্বশুরাল গেঁন্দা ফুল’। ঋতাভরী এবং রাজদীপের জায়গায় ছিলেন ওই ধারাবাহিকে ছিলেন রাগিনী খান্না এবং জয় সোনি।

পটলকুমার গানওয়ালা 

সাহেব চট্টোপাধ্যায় এবং হিয়া দে অভিনীত ‘পটলকুমার গানওয়ালা’ বাংলার হিট ধারাবাহিকগুলির মধ্যে অন্যতম। ধারাবাহিকের জনপ্রিয়তা এতটাই বেশি ছিল যে, তা পৌঁছয় মুম্বইতেও। হিন্দিতে এর রিমেক তৈরি হয়, নাম রাখা হয় ‘কুলফি কুমার বাজোওয়ালা’। তবে বাংলার মতো হিন্দিতে সেই জনপ্রিয়তা ছুঁতে পারেনি এই ধারাবাহিক। পরে হিন্দি ছাড়াও তেলেগু, মালয়ালম এবং তামিল ভাষাতেও রিমেক হয় সিরিয়ালটি।

We’re now on Telegram – Click to join

ইষ্টিকুটুম

প্রায় ৩ বছর বাংলার উত্তর থেকে দক্ষিণ, পূর্ব এবং পশ্চিম সর্বত্র জুড়ে ছিল বাহামণি ও অর্চিবাবুর কাহিনি। ২০১৫-তে শেষ হলেও ‘ইষ্টিকুটুম’-এর জনপ্রিয়তা এতটাই ছিল যে, তা হিন্দি রিমেকও হয়। হিন্দিতে ‘ইমলি’ নামে ধারাবাহিকটি সম্প্রচারিত হলেও বাংলার মতো সেভাবে জনপ্রিয়তা পায়নি।

মিঠাই

বাংলা টেলিভিশনের সবথেকে হিট সিরিয়ালগুলির মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি সিরিয়াল হল ‘মিঠাই’। গত বছর ধারাবাহিক শেষ হওয়ার পরেও এখনও পর্যন্ত দর্শক ভুলতে পারেনি উচ্ছেবাবু এবং মিঠাইকে। ধারাবাহিকের অত্যধিক জনপ্রিয়তার জন্য হিন্দি সহ একাধিক ভাষায় রিমেকও করা হয়। হিন্দিতেও সিরিয়ালের নাম ছিল ‘মিঠাই’। তবে বাংলার মতো জনপ্রিয়তার কাছে ধোপে টেকেনি হিন্দি ধারাবাহিকটি।

মোহর

সোনামণি-প্রতীকের অনবদ্য অভিনয়ে ‘মোহর’ ধারাবাহিক বেশ সফল হয় বাংলায়। গত কয়েক বছর আগে ধারাবাহিক শেষ হলেও দর্শকদের হৃদয়ে আজও এই জুটির জায়গা আগের মতোই আছে। তবে ‘মোহর’-এর হিন্দি রিমেক ‘শৌর্য অউর অনোখি কি কাহানি’ সেভাবে দাগ কাটতে পারেনি।

Read more:- সিরিয়ালের দুঁদে-দজ্জাল শাশুড়ি বিকিনিতে! অভিনেত্রী নন্দিনী চট্টোপাধ্যায়ের ছবিতে মিশ্র প্রতিক্রিয়া নেটিজেনদের

বাংলা থেকে হিন্দিতে রিমেক ধারাবাহিকের সংখ্যা বেশ লম্বা। তবে রিমেক হওয়া সিরিয়ালগুলি বাংলার মতো হিন্দিতে সফল নয়। ব্যতিক্রম অবশ্যই ‘শ্রীময়ী’র হিন্দি ভার্সন ‘অনুপমা’। সফলের তালিকাটা ছোট হলেও অসফল ধারাবাহিকের সংখ্যা অনেক বেশি। এদিকে বাংলা ধারাবাহিকগুলির হিন্দিতে চাহিদা তুঙ্গে। তবে বাংলার গল্পগুলি দর্শককে অনেক বেশি টেনে রাখে বলেই মনে করেন প্রযোজক, পরিচালকরা। যার ফলে হিন্দি রিমেকগুলি ফ্লপ প্রমাণিত হচ্ছে।

এইরকম বিনোদন জগতের প্রতিবেদন পেতে ওয়ান ওয়ার্ল্ড নিউজ বাংলার সাথে যুক্ত থাকুন।

Sanjana Chakraborty

Professional Content Writer

Leave a Reply

Your email address will not be published.