Ranipur Tiger Reserve: টাইগার সাফারি করতে চান? পর্যটকদের নতুন আকর্ষণ উত্তরপ্রদেশের রানিপুর টাইগার রিজার্ভ

Ranipur Tiger Reserve: জঙ্গলপ্রেমীদের জন্য নতুন গন্তব্যস্থল হয়ে উঠতে চলেছে উত্তরপ্রদেশের রানিপুর টাইগার রিজার্ভ

হাইলাইটস:

  • চিড়িয়াখানায় তো অনেক বাঘ দেখলেন, এবার চলে আসুন টাইগার সাফারিতে
  • ৩-৪ দিনের ছুটির জন্য সেরা ডেস্টিনেশন হতে চলেছে উত্তরপ্রদেশের রানিপুর টাইগার রিজার্ভ
  • জঙ্গলের মধ্যে বিলাসবহুল তাঁবুও ব্যবস্থা করতে চলেছে বন দফতর

Ranipur Tiger Reserve: উত্তরপ্রদেশের চিত্রকূটের রানিপুর টাইগার রিজার্ভ (Ranipur Tiger Reserve) পর্যটকদের জন্য নতুন গন্তব্যস্থল হয়ে উঠতে চলেছে। উত্তরপ্রদেশ সরকার এই টাইগার রিজার্ভকে একটি পরিবেশ-পর্যটন (Eco-Tourism) গন্তব্য হিসাবে গড়ে তুলতে চলেছে। এর জন্য একটি পূর্ণাঙ্গ পরিকল্পনাও তৈরি করা হয়েছে এবং তা রূপায়ণের কাজও ইতিমধ্যে শুরু করে দিয়েছে সেরাজ্যের বন দফতর।

We’re now on WhatsApp – Click to join

উত্তরপ্রদেশ সরকারের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, সংরক্ষিত বনাঞ্চল এবং তাকে ঘিরে যে বাফার এলাকাটি রয়েছে সেখানে পর্যটকদের জন্য নানা রকম ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। এই উন্নয়ন পরিকল্পনার জন্য প্রায় ৩৮ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা করেছে সরকার। এছাড়া এখানে পর্যটকদের জন্য বিলাসবহুল তাঁবু গড়ে তোলারও ব্যবস্থা করা হচ্ছে এবং সেই সঙ্গে বাফার এলাকায় অন্যান্য পরিকাঠামোর উন্নতিও ঘটানো হচ্ছে। বন দফতর ইতিমধ্যেই এর কাজ শুরু করে দিয়েছে। এ ব্যাপারে একটি নির্দেশিকা জারি করেছেন রানিপুর টাইগার রিজার্ভের ডেপুটি ডিরেক্টর।

We’re now on Telegram – Click to join

রানিপুর টাইগার রিজার্ভ-এর আয়তন প্রায় ২৩০ বর্গ কিলোমিটার। এই টাইগার রিজার্ভটি উত্তরপ্রদেশের চতুর্থ তথা ভারতের ৫৩ তম টাইগার রিজার্ভ কেন্দ্র হতে চলেছে। ১৯৭৭ সালে উত্তরপ্রদেশের চিত্রকূট জেলায় রানিপুর বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য গড়ে তোলা হয়। নানা ধরনের বন্যপ্রাণীর আবাসস্থল হল এই রানিপুর। এর মধ্যে রয়েছে বাঘ, চিতাবাঘ, সম্বর হরিণ, চিঙ্কারা হরিণ, ভল্লুক, নীলগাই ইত্যাদি। এছাড়া রানিপুরের জঙ্গলে রয়েছে বাঁশ, পলাশ, খয়ের, তেন্দু ইত্যাদি গাছের সমাহারও। পাহাড়-নদীতে ঘেরা এই রানিপুর যেন প্রকৃতির এক স্বর্গরাজ্য। মধ্যপ্রদেশের পান্না টাইগার রিজার্ভ (Panna Tiger Reserve) থেকে মাত্র ১৫০ কিমি দূরে অবস্থিত এটি।

Read more:- দেশের এই ৫টি জাতীয় উদ্যানে বিরল প্রজাতির একশৃঙ্গ বিশিষ্ট গণ্ডারের দেখা মেলে

কলকাতা থেকে কী ভাবে যাবেন রানিপুর – 

কলকাতা থেকে ট্রেনে সোজা চলে যান মৌ রানিপুর। সময় লাগবে ১৯ ঘণ্টার কিছু বেশি। তারপর সেখান থেকে রানিপুরের দুরুত্ব ১০ কিমি। গাড়ি ভাড়া করে যেতে পারেন। অন্যদিকে খাজুরাহো থেকে রানিপুর সড়কপথের দুরুত্ব ১৭০ কিমি। এখানেও গাড়ি ভাড়া করে যেতে পারেন। খাজুরাহো দেখতে গিয়েও আপনি ঘুরে নিতে পারেন রানিপুর।

এইরকম ভ্রমণ সংক্রান্ত প্রতিবেদন পেতে ওয়ান ওয়ার্ল্ড নিউজ বাংলার সাথে যুক্ত থাকুন। 

Sanjana Chakraborty

Professional Content Writer

Leave a Reply

Your email address will not be published.