জীবনধারা

২৮তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হয়ে গেছে কলকাতার প্রাণকেন্দ্র নন্দনে!

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছিলেন অমিতাভ বচ্চন থেকে শাহরুখ খান এবং বলিউডের একঝাঁক তারকা!

২৮তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব: প্রতিবছর আমরা অপেক্ষা করে থাকি এই চলচ্চিত্র উৎসবের জন্য। শুধুমাত্র বাংলার মানুষ না বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষও অপেক্ষা করে থাকেন এই উৎসবের জন্য। রাজ্যের মুখমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অক্লান্তিক প্রচেষ্টায় প্রতিবছরের মতো এইবছরও কলকাতার প্রাণকেন্দ্র নন্দনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২৮তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। প্রায় দু-বছর করোনা মহামারীর জন্য সেইভাবেই অনুষ্ঠিত হয়নি এই উৎসব। এইবছর আবারও জাঁকজমকপূর্ণ ভাবে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২৮তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। এক নজরে দেখে নিন এবারের চলচ্চিত্র উৎসবের গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য-

•২৮তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সময়সূচি:

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব গত ১৫ই ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়ে গেছে এবং চলবে ২২শে ডিসেম্বর অবধি। গত ১৫ই ডিসেম্বর নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে কিফের উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যের নতুন রাজ্যপাল ড. সি. ভি. আনন্দ বোস।

•কিফ ২০২২-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান:

নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে এইবছরও বসেছিল চাঁদের হাট। টলিউডের পাশাপাশি বলিউড থেকেও বিশিষ্টজনেরা উপস্থিত ছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর আমন্ত্রণে উপস্থিত ছিলেন অমিতাভ বচ্চন, জয়া বচ্চন, শাহরুখ খান, সৌরভ গাঙ্গুলী, রানী মুখার্জী, কুমার সানু, অরিজিৎ সিং, মহেশ ভাট, শত্রুঘ্ন সিনহা সহ বিশিষ্টজনেরা। শাহরুখ খানের মুখে বাংলা ভাষা শোনার জন্য গোটা পশ্চিমবঙ্গবাসী এই দিনটির জন্য অপেক্ষা করে প্রতিবছর।

•উদ্বোধনী চলচ্চিত্র:

এবছরের উদ্বোধনী ছবি হিসাবে বেছে নেওয়া হয়েছিল হৃষিকেশ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত অমিতাভ বচ্চন এবং জয়া বচ্চন অভিনীত ছবি ‘অভিমান’। এই ছবি মুক্তি পেয়েছিল ১৯৭৩ সালে। গতকাল নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে বিকেল ৫টা থেকে এই ছবিটি দেখা গিয়েছিল।

•অমিতাভ বচ্চনকে বিশেষ সম্মান:

২০২২ সালে ৮০ বছর বয়সে পা দিলেন অমিতাভ বচ্চন। বলিউডের শাহেনশাহ এবং বাংলার জামাইবাবুকে সম্মান জানাতে চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শনীত হবে তাঁর আটটি ছবি। এবং আরও উল্লেখিত বিষয় হল বাংলার ধন্যি মেয়ে জয়া বচ্চন এবং বাংলার জামাইবাবু অমিতাভ বচ্চন অভিনীত ছবি ‘অভিমান’ ছিল উদ্বোধনী চলচ্চিত্র।

•চলচ্চিত্র উৎসবের স্থান:

নন্দন (১,২,৩), রবীন্দ্র সদন, শিশির মঞ্চ, পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমি সভাঘর, চলচ্চিত্র শতবর্ষ ভবন (রাধা স্টুডিও) ও রবীন্দ্র ওকাকুরা ভবন (সল্টলেক), নজরুল তীর্থ (১,২)- এই সমস্ত জায়গায় দেখা যাবে দেশ- বিদেশের বেছে নেওয়া ছবিগুলি।

•চলচ্চিত্র উৎসবের থিম:

এবছর চলচ্চিত্র উৎসবের থিম রাখা হয়েছে – ‘বিশ্ব মেলে ছবির মেলায়’ (Meet the World, at the World of Cinema)। শহরের বিভিন্ন প্রান্তে লাগানো হয়েছে এই চলচ্চিত্র উৎসবের হোডিং। এই থিম মাথায় রেখে যেভাবে ক্যাম্পেইন সাজানো হয়েছে, তা সত্যিই প্রশংসা যোগ্য। কোথাও ‘দ্য কিড’-র চার্লি চ্যাপলিনের পাশে বসে আছে ‘পথের পাঁচালী’-র অপু, তো কোথাও মহানায়ক উত্তম কুমারের মুখোমুখি বসে আছেন জিন সেবার্গ। আবার রবি ঘোষ, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, অমিতাভ বচ্চনদের অভিনীত চরিত্রগুলি মিলেছে বিদেশী ছবির চরিত্রের সঙ্গে। এক কথায় বলা যায়, গোটা বিশ্বের ছবি মিলেমিশে এক হয়ে গেছে। কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের বৈশিষ্ট্য প্রতিবছরই যেন আরও বেশি করে প্রাধান্য পাচ্ছে।

•কিফ ২০২২ -এর বিভিন্ন বিভাগ:

৪২ দেশের মোট ১৮৩টি ছবি প্রদর্শিত হবে এবছরের কলকাতা চলচ্চিত্র উত্‍সবে। যার মধ্যে প্রতিযোগিতা বিভাগে রয়েছে ৬৬টি ছবি। আবার পাঁচটি আলাদা প্রতিযোগিতামূলক বিভাগও রয়েছে এইবছর। বিভাগগুলি হল- ইন্টারন্যাশনাল কম্পিটিশন ইনোভেশন ইন মুভিং ইমেজ, কম্পিটিশন অন ইন্ডিয়ান ল্যাঙ্গুয়েজেস, এশিয়ান সিলেক্ট (নেটপ্যাক অ্যাওয়ার্ড), ন্যাশনাল কম্পিটিশন অন ডকুমেন্টারি এবং শর্ট ন্যাশনাল কম্পিটিশন অন ফিকশন। এছাড়াও দুটি নন-কম্পিটিশন বিভাগ রয়েছে, সেটি হল -সিনেমা ইন্টারন্যাশনাল ও বেঙ্গলি প্যানোরামা। ক্রীড়া বিষয়ক বেশ কয়েকটি ছবি দেখানো হচ্ছে এইবছর। সে তালিকায় রয়েছে ‘৮৩’, ‘এমএস ধোনি’, ‘চক দে ইন্ডিয়া’, ‘মেরি কম’ এবং ‘ভাগ মিলখা ভাগ’-র মতো বিখ্যাত ছবিগুলি।

পরিশেষে বলা যায়, বলিউড বাদশা এবং বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর শাহরুখ খানের মুখে বাংলা ভাষা শোনার পর বাঙালি যেন নতুন করে প্রাণ খুঁজে পেয়েছেন।

Sanjana Chakraborty

My name is Sanjana Chakraborty. I'm a content writer. Writing is my passion. I studied literature, so I love writing.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button