জীবনধারা

আপনি কী এই বছর দর্গুার্গপুজ োয় কলকাতা ভ্রমণে র পরি কল্পনা করছে ন?

দর্গুার্গপুজ োয় কলকাতা যাওয়ার জন্য পরি কল্পনা বানি য়ে ফে লনু।

কলকাতা হল প্রাণে র শহর। এই শহর তার ঐতি হ্য ও সংস্কৃতি র জন্য বি শ্বজড়েুড়ে পরি চি ত। কলকাতার সর্বশ্রে ষ্ঠ উৎসব
দর্গুার্গপুজ ো শহরে র প্রাণবন্ত চে তনাকে সংজ্ঞায়ি ত করে । এই উৎসব চলাকালীন পুর ো কলকাতা শহরকে একটি জাদঘুরে র
মত ো দে খায়, যে খানে বি ভি ন্ন থি মে র অলঙ্কৃত প্যান্ডে ল, দে বী দর্গুার্গর মহি মান্বি ত মর্তিূর্তি, দর্দুর্দান্ত আল ো এবং আরও অনে ক
কি ছু। এই উৎসবে স্থানীয়দে র পাশাপাশি পর্যটকদে র প্রচণ্ড ভি ড়ে র কারণে হ োটে ল ও রে স্ত োরাঁগুল োও তাদে র পরি ষে বা দি তে
হি মশি ম খায়। সুতরাং আপনি যদি দর্গুার্গপুজ োর সময় কলকাতা ভ্রমণে র পরি কল্পনা করে ন তাহলে আপনাকে নি ম্নলি খি ত
বি ষয়গুলি মনে রাখতে হবে :
১. সর্বপ্রথম ফ্লাইটে র টিকি ট বকু করুন :
নি শ্চি ত করুন যে , আপনি যাত্রা শুরু করার আগে আপনার ফ্লাইটে র টিকি ট বকু করে ছে ন। কারণ পুজ োর আগে এবং পুজ ো
চলাকালীন কলকাতা যাওয়ার ফ্লাইটে র টিকি টে র রে ট স্বাভাবি কে র চে য়ে অনে ক বে শি থাকে । সুতরাং আপনি যদি শে ষ
মহুূর্তে আপনার টিকি ট বকু করে ন, তাহলে আপনাকে অনে ক অসুবি ধায় পড়তে হতে পারে ।
২. পাস সংগ্রহ করুন :
কলকাতা জড়েুড়ে সমস্ত জনপ্রি য় প্যান্ডে লগুলি উৎসব চলাকালীন দর্শকদে র দ্বারা অত্যধি ক পরি পূর্ণ থাকে । কখনও কখনও
একটি প্যান্ডে লে র ভি তর অবধি যে তে ল োকে দে র ৩-৪ ঘন্টার বে শি সময় ধরে লাইনে অপে ক্ষা করতে হয়। এই ভি ড়
এড়ান োর একমাত্র উপায় হল প্যান্ডে ল পাস সংগ্রহ করা। অনে ক স্থানীয় দর্গুার্গপুজ ো সংস্করণ পত্রি কা এই পাসগুলি বি তরণ
করে । ফলে পাসে র জন্য আপনাকে ক োন পত্রি কা কি নতে হবে তা জানতে স্থানীয় বন্ধুর সাথে য োগায োগ করুন। অথবা
যদি আপনি পুজ ো কমি টির কাউকে চে নে ন তবে আপনি সরাসরি সে ই ব্যক্তি র কাছ থে কে প্যান্ডে লে র পাস চাইতে পারে ন।
৩. হে রি টে জ হ োমে থাকুন :
উৎসবে র আবে শে গা ভাসি য়ে দে ওয়ার সবচে য়ে ভাল ো উপায় হল শহরে র একটি হে রি টে জ হ োমে থাকা। তারা আপনাকে
বাঙালি আতি থে য়তার সাথে ব্যবহার করবে এবং আপনাকে খাঁটি বাঙালি খাবার পরি বে শন করবে । এছাড়াও দর্গুার্গপুজ ো এই
প্রাসাদসুলভ সম্পত্তি তে ঘর োয়া রীতি তে উদযাপন করা হয়।

৪. অষ্টমীতে জাতি গত প োশাক পরি ধান করুন :
মলূত দর্গুার্গপুজ োর ৫ দি ন হল ষষ্ঠী, সপ্তমী, অষ্টমী, নবমী এবং বি জয়াদশমী। দর্গুার্গপুজ োর সময় নতুন প োশাকে সে জে উঠে
কলকাতাবাসী। বাকি ৪ দি ন ইচ্ছা মত ো প োশাক পড়লে ও অষ্টমীর জন্য শহরে র একটি ড্রে স ক োড রয়ে ছে । সুতরাং সে ই
অনযুায়ী আপনাকে ও ব্যাগ প্যাকি ং করতে হবে ।
৫. সি দঁ রুখে লা ও বি সর্জনে অংশগ্রহণ করুন :
দশমী হল উৎসবে র শে ষ দি ন। এই দি ন বি বাহি ত মহি লারা লাল পাড় সাদা শাড়ি পড়ে সি দঁ রু খে লাতে মত্ত থাকে ন। এই
অনষ্ঠু ানটি সি দঁ রুখে লা নামে ই পরি চি ত। আবার অন্য দি কে হাতে ধুনচিুচি নি য়ে ঢাকে র তালে ও মানষু নাচে ন। অবশে ষে

বি সর্জনে র অনষ্ঠু ান হয় এবং আবে গপ্রবণভাবে দর্গুার্গ মাকে বি দায় জানান সকলে এবং সে ই সঙ্গে ই বলে উঠে ন “আসছে বছর
আবার হবে “। বাগবাজার গঙ্গার ঘাটে জমকাল ো প্রতি মা নি রঞ্জন প্রক্রি য়া অনষ্ঠিুষ্ঠিত হয়। আবার এখন দর্গুার্গপুজ ো
কার্নি ভালে রও আয় োজন করা হয়। এই কার্নি ভাল দে খতে ও সারা দে শ থে কে মানষু আসে ন।
সুতরাং আপনি যদি কলকাতার দর্গুার্গপুজ োয় অংশগ্রহণ করতে চান তবে দে রি না করে তাড়াতাড়ি ব্যাগ প্যাকি ং করুন আর
চলে আসুন তি ল োত্তমা নগরীতে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button